আজ শনিবার, ৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭           আমাদের কথা    যোগাযোগ
Owner

শিরোনাম

  জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল কপোতাক্ষ নিউজের জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীরা ০১৭১৯২৮০৮২৭ নাম্বারে যোগাযোগ করুন।  

জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসকসহ জনবল সংকট,বিপাকে সাধারণ রোগী


জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসকসহ জনবল সংকট,বিপাকে সাধারণ রোগী

প্রকাশিতঃ রবিবার, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৬   পঠিতঃ 291249


গোলাম সারোয়ার,জগন্নাথপুর প্রতিনিধি::-মানুষের মৌলিক ৫টি অধিকারের প্রধান একটি অধিকার হচ্ছে স্বাস্থ্য বা চিকিৎসা সেবা। কিন্তু এসব অধিকার ঠিকমতো পাচ্ছেনা সুনামগঞ্জ জেলার প্রবাসী অধ্যাশিত জগন্নাথপুর উপজেলার প্রায় ৪ লক্ষাধিক জনসাধারণ। স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্ছিত হতে হচ্ছে সমগ্র উপজেলাবাসীকে। উপজেলার প্রত্যেকটি এলাক থেকে রোগী সাধারনকে ভোগান্তিতে পরতে হচ্ছে। ফলে উপজেলার ৫০ শয্যা বিশিষ্ট এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র গুলোতে চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হয়ে পড়েছে। সঙ্গত কারনে এখানকার জনসাধারণ সরকারী স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্ছিত হচ্ছেন। ২৯ জন ডাক্তারের মধ্যে ১৪ জন দ্বারা চলছে জগন্নাথপুরবাসীর স্বাস্থ্য সেবা। ব্যাপক চিকিৎসক সংকটে রয়েছে এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটি। বর্তমানে এই উপজেলায় ১৫ জন ডাক্তারের পদ শুন্য রয়েছে। এছাড়া ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারীরও ২০ পোষ্ট খালি রয়েছে। যারা ফলে হাসাপাতাল প্রাঙ্গনে নানান সমস্যার সম্মূখিন হতে হচ্ছে রোগীদের। ডাক্তার, ল্যাবটেকনিশিয়ানসহ জরুরী পদগুলোর প্রায় অর্ধেক পদ শূন্য হয়ে দীর্ঘ দিন যাবত পড়ে আছে। ডাক্তাররা আসলেও কেউ স্থায়ীভাবে থাকতে না চাওয়ায় সাধারণ লোকজন জরুরী সেবা থেকেও বঞ্চিত হচ্ছেন। এসব কারণে এই উপজেলার সচ্ছল মানুষজন এই হাসপাতালে না এসে সিলেটে গিয়ে চিকিৎসা সেবা নিয়ে যাচ্ছেন। বিপাকে অসচ্ছল মানুষ রয়েছেন। তাদের দাবী জনবল সংকট পূরণ। জনবল সংকট পূরণ হলে ভোগান্তিতে পরতে হবে রোগী সাধারণের। এমন মন্তব্য করেছেন সচেতন নাগরিকেরা।

সুনামগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয় ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, এ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিভিন্ন পদে ১৭৯ জন রয়েছে। তার মধ্যে অধিকাংশ পদ দীর্ঘদিন ধরে শূন্যতায় রয়েছে। শূণ্য থাকা পদবি হল চিকিৎসক ২৯ জনের মধ্যে আছেন মাত্র ১৪ জন। নেই অর্ধেকেরও উপরে ১৫ জন। এমটি ল্যাব ৩টির মধ্যে পুরোটিও খালি রয়েছে। এক্সরে টেকনিশয়ান ১টির মধ্যে ১ টি শূণ্য রয়েছে। সেকম ১০ টি পদের মধ্যে খালি রয়েছে ৭টি। আছেন মাত্র ৩জন। ফার্মাসিস্ট ৭ জনের মধ্যে আছেন মাত্র ১ জন। বাকী রয়েছে এই পদে ৬ জন। চতুর্থ শ্রেণীর ২৭ টির মধ্যে আছেন মাত্র ৭ জন। ফাঁকা রয়েছে এই পদে যথারীতি ২০ টি। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য পদবি হল আয়া,সুইফার,ওয়ার্ড বয় ও এমএলএসএস না থাকায় হাসপাতাল প্রাঙ্গনে নানা সমস্যার দেখা দিয়েছে ইতোমধ্যে। যদিও কর্তবরতরা নিজেরা কর্মচারী নিয়োগ করে তাঁদের নিজেদের থেকে বেতন দিয়ে এসব কাজ করিয়ে  যাচ্ছেন। তারা চেষ্টা করে যাচ্ছেন সাধ্যমত চিকিৎসা প্রদান করতে। অনেক সময় জনবল সংকট থাকায় চিকিৎসা প্রদান করতে নানান সমস্যার সম্মুখিন হতে হচ্ছে। এমনকি হাসাপাতালে আমরা সাধ্যের বাহিরে গিয়ে চিকিৎসা প্রদান করে আসছি বলে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকেরা জানান। হাসপাতালে এক্সর মিশিন জনবল সংকটের কারণে ব্যাবহার না করতে পারায় বর্তমানে অকেজো হয়ে পরেছে। এমনকি জরুরী পরিক্ষা নিরিক্ষা করতে পারছেন না রোগীগন। তাই বাধ্য হয়েই তাদের টেস্ট ও বিশেষায়িত সেবার জন্য সিলেট শহরে যেতে হয়। যে কয়েকজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা রয়েছেন তারাও নিয়মিত হাসপাতালে আসেননা বলে অভিযোগ করেছেন রোগী সাধারন। যদিও দীর্ঘদিন যাবত নার্সের পদবি খালি ছিল গত কয়েকদিন আগে এসব পদবি পূরণ হয়েছে।


এই হাসপাতালে উপজেলার সাধারণ মানুষের বিশেষায়িত চিকিৎসার জন এই দুইজন আউটডোরে ও ইনডোরে সেবা দিতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন।

উপজেলার সৈয়দপুর গ্রামের বাসিন্দা সৈয়দ রামিম,জগন্নাথপুর সদর এলাকার বাসিন্দা নুর মিয়াসহ অনেক রোগী পি.জি.পি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম’কে বলেন- আমরা উপজেলা হাসপাতালে এসে ডাক্তার পাইনা। তাই আমাদের এলাকার যাদের আর্থিক অবস্থা ভালো তারা হাসপাতাল না এসে সিলেট চলে যায়। তবে গরিব লোকদের চিকিৎসার সমস্যা হচ্ছে। গরিব লোকদের মধ্যে যারা চিকিৎসা নিতে আসেন তারা সাধারণ সেবাও পাননা।
জগন্নাপথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সামছ উদ্দিন বলেন- আমাদের সমস্যার কথাগুলো দফায় দফায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট জানানো হয়েছে। সকলের সহযোগীতা নিয়ে সীমিত লোকবল নিয়েই মানুষের সেবা দিতে চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছি। তিনি বলেন, সম্প্রতি হাসপাতালে নতুন এ্যাম্বুলেন্স উদ্বোধনকালে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও বর্তমান সরকারের অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান স্যারকে আমাদের হাসপাতালের বিভিন্ন সমস্যাদির কথা তুলে ধরি এবং তার প্রেক্ষিতে তিনি একটি ডিও লেটার প্রদান করেন। আমরা সীমিত জনবল নিয়ে সাধ্যমত চিকিৎসা প্রদান করে আছি । আশা করছি অতি তাড়াতাড়ি  জনবল সংকট মুক্ত হতে পারব।

সুনামগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল হাকিম বলেন- নার্সের সংকট থেকে আমার ইতোমধ্যে সেরে উঠেছি। কিছুদিনের মধ্যে  জনবলও পেয়ে যাব। তাই সংকটময় সময়ে সমীত জনবল নিয়েই আমরা আন্তরিকভাবে সেবা দিচ্ছি।

মোঃ মেহেদী হাসান /


মন্তব্য করুন

যশোরে গত ২৪ ঘণ্টায় ২ জনের করোনা শনাক্ত

সিলেটের সাবেক মেয়র কামরান করোনা আক্রান্ত

মনিরামপুরে টিন-টাকা পাওয়া ক্ষতিগ্রস্থদের বাড়ি পরিদর্শনে ইউএনও

যশোরে ক্ষুধার্ত হনুমানের কামড়ে ৩ দিনে ১২ জন আহত

চুয়াডাঙ্গায় পাঁচ এসআইসহ আরো ১১ জন করোনা শনাক্ত

যুগ্মসচিব হলেন যশোরের ডিসি

যশোর রোড অবরোধ করে থানার সামনে বিজেপি’র অবস্থান-বিক্ষোভ

জনবান্ধব ও সফল ইউপি চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন

মনিরামপুরের শ্যামকুড়ে আম্পানে কেড়ে নিল দিনমজুরের বাসস্থান, পায়নি কোন সহায়তা

কেশবপুরে অনলাইনে চিত্রাংকন ক্লাসের উদ্বোধন

হিলি স্থল বন্দরে আমদানি-রপ্তানী চালু করতে সীমান্তের শুন্যরেখায় ব্যবসায়ীদের বৈঠক

কপোতাক্ষ পরিবারের রানা-রবি পৃথক দুর্ঘটনায় মারাত্মক আহত

কালীগঞ্জে সুপারি গাছ থেকে পড়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে সিয়াম!

কারাগার থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এহসান হাবিব সুমন এর খোলা চিঠি

এসএসসি পরীক্ষাঃ বাংলা দ্বিতীয় পত্রে বেশি নম্বর সহজেই...

যেকোন সময় ঘোষণা হতে পারে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি

যশোরে এবার সরকারি চালসহ ঘাতক দালাল নিমূল কমিটির নেতা আটক

৫০ বছর ধরে দল করেও সুবিধা বঞ্চিত আ'লীগের প্রচার সম্পাদক নূরুল হক

যশোরের রাজগঞ্জে ৫৬ যুবকের উদ্যোগে ভাসমান সেতু র্নিমাণ

কেশবপুরের শাহীনের সেই ভ্যানটি উদ্ধার, আটক তিনজন

লালমনিরহাটে এক বিধবা মা বাইসাইকেল চালিয়ে ৪২ বছর স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছেন

নোংরা রাজনীতির শিকার যশোরের এমপি স্বপনের ছেলে শুভ

নারী সহকারীর সঙ্গে ডিসির অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল, সংবাদ না করার অনুরোধ

ব্যাচমেট হিসেবে সাইয়েমার পক্ষে সকলের কাছে ক্ষমা চাইলেন কেশবপুরের এসিল্যাণ্ড

আপনার কাছে জনপ্রিয় খেলা কোনটা ?

  ক্রিকেট

  ফুটবল

  ভলিবল

  কাবাডি

অফিস ঠিকানা  

আর এল পোল্ট্রি, উপজেলা রোড, কেশবপুর বাজার, যশোর।
মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

প্রকাশক ও সম্পাদক 

মোঃ মাহাবুবুর রহমান (মাহাবুর)

মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

সোশ্যাল মিডিয়ায় আমরা