আজ বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬           আমাদের কথা    যোগাযোগ
Owner

শিরোনাম

  জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল কপোতাক্ষ নিউজের জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীরা ০১৭১৯২৮০৮২৭ নাম্বারে যোগাযোগ করুন।  

ছেলেধরা আতঙ্কে কমে গেছে স্কুলে শিক্ষার্থী উপস্থিতি 


ছেলেধরা আতঙ্কে কমে গেছে স্কুলে শিক্ষার্থী উপস্থিতি 

প্রকাশিতঃ বুধবার, জুলাই ২৪, ২০১৯   পঠিতঃ 65961


বিশেষ প্রতিনিধিঃ একদিকে ছেলেধরা আতঙ্ক অন্যদিকে প্রচন্ড গরম। স্কুলে কমে গেছে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি। একমাসেরও বেশি সময় ধরে চলে আসছে ছেলেধরা গুজব। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল থেকে এই গুজব শুরু হয়। অনেক এলাকায় রাত জেগে পালাক্রমে পাহারা দিয়েছে এলাকাবাসী। অপরিচিত লোক বিশেষ করে মহিলা এবং রোহিঙ্গাদের মত দেখতে হলেই তাকে ছেলেধরা মনে করে মারা হয়েছে। বেশ কয়েকজন মারাও গেছে।

গত ১৮ জুলাই নেত্রকোনায় নিউটাউন পুকুরপাড় এলাকায় রবিন নামে এক যুবকের ব্যাগে ৭ বছরের শিশুর কাটা মাথা পাওয়া যায়। স্থানীয় জনগণ ঐ যুবককে পিটিয়ে হত্যা করে। ১৯জুলাই ঢাকার কেরানীগঞ্জের রসুলপুর গ্রামে ২ যুবকের গতিবিধি সন্দেহজনক হলে তাদেরকে গণপিটুনি দেয়। গণপিটুনিতে একজন মারা যায়। ২০ জুলাই ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের ২জনকে ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ঢাকার বাড্ডায় ছেলেধরা গুজবে গণপিটুনিতে প্রাণ গেল তাসলিমা বেগম রেনু। তাসলিমা বেগম উত্তর-পূর্ব বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়েছিলেন খোঁজ খবর নিতে তার চার বছরের মেয়েকে ভর্তি করাবেন বলে। কিন্তু লাশ হয়ে ফিরতে হলো তাকে। একই দিনে নারায়নগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে এক যুবককে ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। সাভারে অজ্ঞাত এক নারীকে ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

২১ জুলাই টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার সয়া হাটে মাছ কিনতে গিয়ে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনির শিকার হয়েছেন ভ্যানচালক মনু মিয়া নামে এক ব্যক্তি। আহত মনু মিয়া বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন। নওগাঁর মান্দা উপজেলার ৬ জেলেকে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি দেয়া হয়েছে। কুমিল্লার সদর উপজেলায় ৩জনকে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি দেয়া হয়েছে। মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার হালিমা বেগম নামে এক নারী একটি মেয়ে শিশুকে নিয়ে পালানোর সময় ধরা পড়ে তাকে গণপিটুনি দেয়া হয়েছে। চট্রগ্রামের বাঁশখালীতে ছেলে ধরা সন্দেহে জনি, সোহেল ও হৃদয় নামে ৩ যুবক গণপিটুনির শিকার হয়েছে। সোমবার কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় ছেলেধরা সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারীকে পিটুনি দিয়েছে স্থানীয়রা। রাজশাহীর চারঘাট উপজেরার ৫ এনজিও কর্মীকে ছেলেধরা গুজবে গণপিটুনি দিয়ে আহত করেছে। মাদারীপুর সদর উপজেলার বৈরাগীর বাজার এলাকায় এক মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে ছেলেধরা সন্দেহে গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতন করেছে স্থানীয়রা।

সারাদেশে বিরাজ করছে ছেলেধরা আতঙ্ক। প্রতিদিন কোন না কোন এলাকায় ছেলেধরা সন্দেহে ব্যক্তি গণপিটুনির শিকার হচ্ছে। এনিয়ে অভিভাবকদের মধ্যেও বিরাজ করছে এক ধরনের আতঙ্ক। অনেকেই তাদের সন্তানকে স্কুলে পাঠাচ্ছে না।  এদিকে জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের পক্ষ থেকে ছেলেধরা সম্পর্কে সতর্ক করে গুজবে কান না দেওয়ার আহবান করা হয়েছে। সন্দেহভাজন মনে হলে নিকটস্থ থানায় অথবা ৯৯৯ অথবা ৩৩৩ নম্বরে যোগাযোগ করে তথ্য দিতে বলা হয়েছে। সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ ‘ছেলেধরা’ সম্পর্কে জনসাধারণকে সচেতন করতে মসজিদের খতিব/ইমামদের প্রতি আহবান করেছেন।

পুলিশ সদরদপ্তর থেকে বিশেষ সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়েছে। ‘গুজব ছড়াবেন না, আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না।’ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘‘পদ্মা সেতুতে মাথা ও রক্ত লাগবে’’ এই গুজবকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে বেশ কয়েকজন নিহত হবার ঘটনা ঘটেছে। দেশবাসীর জ্ঞাতার্থে আবারো জানানো যাচ্ছে যে, এটি সম্পূর্ণরুপে একটি গুজব। কোন প্রকার গুজবে কান দিবেন না  এবং গুজব ছড়িয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করবেন না। সেই সাথে দেশবাসীকে অনুরোধ করা হচ্ছে যে, গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে ছেলে ধরা সন্দেহে কাউকে গণপিটুনি দিয়ে আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না। এপর্যন্ত গণপিটুনির ফলে যতগুলো নিহতের ঘটনা ঘটেছে তার প্রত্যেকটি ঘটনা আমলে নিয়ে পুলিশ তদন্তে নেমেছে এবং জড়িতদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। 

এধরণের গুজব ছড়িয়ে দেশে অস্থিতিশীলতা তৈরি করা রাষ্ট্র বিরোধী কাজের সামিল এবং গণপিটুনি দিয়ে মৃত্যু ঘটানো গুরুতর ফৌজদারী অপরাধ। আসুন আমরা সকলে সচেতন হই, গুজব ছড়ানো এবং গুজবে কান দেয়া থেকে বিরত থাকি। কাউকে ছেলে ধরা সন্দেহ হলে গণপিটুনি না দিয়ে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেই।’’

২১জুলাই মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে ছেলেধরা বিষয়ক গুজব সম্পের্ক সচেনতা সৃষ্টির জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠান প্রধান ও শিক্ষকদের সতর্ক করা হয়েছে। বলা হয়েছে, ‘কোনো অবস্থাতেই শিক্ষার্থীদের কেন্দ্র করে এধরণের পরিস্থিতি যেন সৃষ্টি না হয় তার জন্য সর্বদা সচেতন থাকতে হবে এবং শিক্ষার্থীদেরও এবিষয়ে সচেতন করতে হবে। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক দূর্গা রানী সিকদার সাক্ষরিত এক পত্রে এই নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। 

ছেলেধরা গুজবে অনেক অভিভাবক তাদের সন্তানকে স্কুলে পাঠাচ্ছেন না। ফলে স্কুলে শিক্ষার্থীর উপস্থিতি কমেগেছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিভাবকদের গুজবে কান না দিয়ে সন্তানদের নির্ভয়ে স্কুলে পাঠাতে অনুরোধ করেছেন। 

এম. এ. আলিম খান / কামরুজ্জামান রাজু


মন্তব্য করুন

কেশবপুরের পাঁজিয়ায় ফ্রি ব্লাড গ্রুপ ক্যাম্পেইন বৃহস্পতিবার

নাটোরে মৃত্যুর চার মাস পর আ’লীগ নেতার লাশ উত্তোলন

নাটোরের বড়াইগ্রামে অবৈধ ব্যাংকিং কার্য্যক্রম চালাচ্ছে এসটিসি

নাটোরের গুরুদাসপুরে নিজস্ব অর্থায়নে মিড ডে মিল চালু

চুকনগরে কাঁঠালতলা বাজার কমিটি নির্বাচনে আজিজ সভাপতি, রায়হান সম্পাদক

যুবলীগের শীর্ষ দুই পদে আলোচনায় যারা

ঘুমন্ত তুহিনকে ঘরের বাইরে নিয়ে আসে বাবা, খুন করে চাচা

স্বপ্নগুলো এভাবেই ভাঙে, ২ রানে নয়তো ২ মিনিটে: মোসাদ্দেক

এম এম কলেজ ক্যাম্পাসের উন্নয়নের দাবি সাধারণ শিক্ষার্থীদের

কেশবপুরের মজিদপুর ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন

যে কারণে বাংলাদেশের তরুণদের হৃদরোগ হয়, জানালেন ডা. দেবী শেঠি

ঢাকা কলেজ থেকে ছাড়পত্র নিলেন আবরারের ছোট ভাই ফায়াজ

কালীগঞ্জে সুপারি গাছ থেকে পড়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে সিয়াম!

কারাগার থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এহসান হাবিব সুমন এর খোলা চিঠি

যেকোন সময় ঘোষণা হতে পারে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি

৫০ বছর ধরে দল করেও সুবিধা বঞ্চিত আ'লীগের প্রচার সম্পাদক নূরুল হক

এসএসসি পরীক্ষাঃ বাংলা দ্বিতীয় পত্রে বেশি নম্বর সহজেই...

যশোরের রাজগঞ্জে ৫৬ যুবকের উদ্যোগে ভাসমান সেতু র্নিমাণ

কেশবপুরের শাহীনের সেই ভ্যানটি উদ্ধার, আটক তিনজন

নোংরা রাজনীতির শিকার যশোরের এমপি স্বপনের ছেলে শুভ

লালমনিরহাটে এক বিধবা মা বাইসাইকেল চালিয়ে ৪২ বছর স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছেন

নারী সহকারীর সঙ্গে ডিসির অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল, সংবাদ না করার অনুরোধ

আমি চাই আমাকে দেখে আর দশটা মেয়ে সমাজে প্রতিষ্ঠিত হোক - শ্রাবন্তী অনন্যা

বিএনপি নেতা আবু বকর আবু’র জানাজায় হাজারো মানুষের ঢল

আপনার কাছে জনপ্রিয় খেলা কোনটা ?

  ক্রিকেট

  ফুটবল

  ভলিবল

  কাবাডি

অফিস ঠিকানা  

আর এল পোল্ট্রি, উপজেলা রোড, কেশবপুর বাজার, যশোর।
মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

প্রকাশক ও সম্পাদক 

মোঃ মাহাবুবুর রহমান (মাহাবুর)

মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

সোশ্যাল মিডিয়ায় আমরা