আজ রবিবার, ৩১ মে ২০২০, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭           আমাদের কথা    যোগাযোগ
Owner

শিরোনাম

  জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল কপোতাক্ষ নিউজের জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীরা ০১৭১৯২৮০৮২৭ নাম্বারে যোগাযোগ করুন।  

রক্তদানে কোনো ভয় নয়


রক্তদানে কোনো ভয় নয়

প্রকাশিতঃ শনিবার, নভেম্বর ২, ২০১৯   পঠিতঃ 148743


কোনো এক বন্ধুকে দেখলেন তার খুব কাছের কোনো মানুষের জন্য রক্ত চেয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিলো। মানুষটি মুমূর্ষু, সময়মতো রক্ত না পেলে কিছু একটা হয়ে যেতে পারে। বিস্তারিত পড়ে দেখলেন রোগীটির সঙ্গে আপনার রক্তের গ্রুপটা মিলে গেছে। ভাবতে শুরু করলেন, অবস্থা যখন এতোটাই জটিল, তখন তো কিছু একটা করাই দরকার। কিন্তু আপনি কখনো রক্ত দেননি। সূঁচ দেখলেও আপনার ভয় করে। আর রক্ত দিলে অজ্ঞান হয়ে যাবো, শরীর ভেঙে পড়বে, অসুখ করবে- মনের মধ্যে এসব ধারণা তো রয়েছেই।

আসলে কিন্তু ব্যাপারটা তা নয়। রক্ত দিলে আপনার আদতে কোনো ক্ষতি তো হয়ই না, বরং উপকারই হয়। খোঁজ নিয়েই দেখুন, দেশের তরুণ সমাজ নিয়মিত নিজের চেষ্টায় বা কোনো সংগঠনের মাধ্যমে রক্তদান করছে। এটাই স্বেচ্ছায় বিনামূল্যে রক্তদান। এতে তার কোনো উদ্দেশ্য নেই। উদ্দেশ্য একটাই, আরেকটি মানুষকে বাঁচিয়ে তোলা ও পরিবারের মুখে হাসি ফোটানো। আজ জাতীয় স্বেচ্ছায় রক্তদান দিবস উপলক্ষ্যে আপনাদের জন্য থাকছে রক্তদান নিয়ে বিশেষ কিছু আলোচনা-

রক্ত দিলে শারীরিক কোনো অসুবিধা হয় কি?

রক্ত দিলে কোনো শারীরিক অসুবিধা হয় না, কারণ যেই রক্তটুকু ৪ মাস পর নষ্ট হবার কথা ছিল, তার অল্প অংশ (৩৮০মিলিলিলিটার) বের করে নেওয়া হয়। তবে যেই প্রক্রিয়া সাধারণভাবে হওয়ার কথা ছিল তা খুব অল্প সময়ের মধ্যে নিয়ে নেওয়া হয় রক্তদানের সময়। আর এ কারণেই মাথা ঘুরতে পারে। তবে সেটি অল্প বিশ্রাম আর পানি খেলেই ১০-১৫ মিনিটে ঠিক হয়ে যায়।

কারা কখন দিতে পারবে রক্ত

স্বেচ্ছায় রক্তদান নিয়ে সমাজে যেসব ভুল ধারণা প্রচলিত রয়েছে। তার একটি নিরামিষাশীরা স্বেচ্ছায় রক্তদান করতে পারেন না। কিন্তু এই তথ্যটি পুরোপুরি সত্য নয়। মূলত নিরামিষাশীদের রক্তে আয়রনের মাত্রা কম থাকে বলেই অনেক সময় চিকিত্সকরা তাদের রক্তদানের ক্ষেত্রে কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করেন। সাধারণত মনে করা হয়, নিরামিষাশীদের খাদ্যে আয়রন কম থাকে। কিন্তু যদি ওই ব্যক্তি নিয়মিত সুষম খাদ্য গ্রহণ করেন তাহলে তার রক্তে আয়রন কম থাকার কোনো ঝুঁকি থাকে না। রক্তদাতার রক্তে আয়রন স্বাভাবিক মাত্রায় থাকলে রক্তদানে কোনো বাধা নেই। এই কারণে অনেক দেশে রক্তদানের আগে রক্তদাতার রক্তের হিমোগ্লোবিন পরীক্ষা করে দেখা হয়। যদি দেখা যায় রক্তদাতার রক্তে হিমোগ্লোবিন কম থাকে অর্থাত্ অ্যানিমিয়ায় ভুগে তাহলে তাকে রক্তদান থেকে বিরত রাখা হয়। এসব সমস্যা না থাকলে অন্য আট দশজনের মতো তিনিও রক্ত দিতে পারেন।

অসুস্থ, অন্তঃসত্ত্বা, শিশু বা বয়োবৃদ্ধ হলে রক্তদানে নিরুত্সাহিত করা হয়। যারা এইচআইভি পজিটিভ (এইডস আক্রান্ত), হেপাটাইটিস, সিফিলিস, টিবি এবং রক্তবাহিত আরও কিছু রোগে আক্রান্ত তারা রক্তদান করতে পারেন না। ঠাণ্ডা, সর্দিজ্বর, খুশখুশে কাশি, পেট খারাপ থাকলেও রক্তদান করতে পারেন না। যে কোনো অসুখ থেকে সম্পূর্ণভাবে সেরে ওঠার ১৪ দিন পর সাধারণত রক্তদান করতে দেওয়া হয়। কেউ যদি অ্যান্টিবায়োটিক নিয়ে থাকেন তাহলে কোর্স শেষ হওয়ার সাত দিন পর রক্ত দেওয়া যায়। অন্যান্য ওষুধের ক্ষেত্রে একেক দেশে একেক রকম নিয়ম রয়েছে।

অন্তঃসত্ত্বা কিংবা প্রসূতি হলে, শিশুকে স্তন্যদান করলে কিংবা অ্যাবোরশন হলে, রক্তে আয়রনের মাত্রা স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত রক্তদানের জন্য অপেক্ষা করতে হবে। নিয়মিত রক্তদানকারীদের কোনো সর্বোচ্চ বয়সসীমা নেই। কোনো কোনো দেশে এটি ৬০-৭০ বছর পর্যন্ত হয়ে থাকে।

সাধারণত ১৮ বছরের কম, ওজন ৪৫ কেজির নিচে, শরীরে রক্তশূন্যতা এর উপস্থিতি থাকলে রক্ত দেওয়া সম্ভব হয় না।

রক্তদানের ৬ মাস আগে বড় ধরনের কোনো অপারেশন, ম্যলেরিয়া, জন্ডিস, টাইফয়েড হয়ে থাকলেও রক্তদান করা সম্ভব হয় না। উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস রোগীরাও রক্ত দিতে পারে না। এছাড়া কোনো ভ্যাক্সিন চলাকালেও রক্তদান থেকে বিরত থাকতে হয়।

কেন দেবেন রক্ত

১. রক্তদানে সাধারণত কোনো সমস্যা হয় না। কেননা একজন সুস্থ মানুষের শরীরে পাঁচ-ছয় লিটার রক্ত থাকে। এর মধ্যে সাধারণত ২৫০ থেকে ৪০০ মিলিলিটার রক্ত দান করা হয়, যা শরীরে থাকা মোট রক্তের মাত্র ১০ ভাগের এক ভাগ। রক্তের মূল উপাদান পানি, যা ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পূরণ হয়ে একেবারে স্বাভাবিকভাবেই।

২. রক্তদান স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। রক্তদানের সঙ্গে সঙ্গে শরীরের ‘বোনম্যারো’ নতুন কণিকা তৈরির জন্য উদ্দীপ্ত হয়। দুই সপ্তাহের মধ্যে নতুন রক্তকণিকা জন্ম হয়, ঘাটতি পূরণ হয়।

৩. বছরে তিনবার রক্তদান শরীরে লোহিত কণিকাগুলোর প্রাণবন্ততা বাড়িয়ে তোলে ও নতুন কণিকা তৈরির হার বাড়ায়।

৪. নিয়মিত রক্তদানকারীর হার্ট ও লিভার ভালো থাকে।

৫. স্বেচ্ছায় রক্তদানের মাধ্যমে পাঁচটি পরীক্ষা সম্পূর্ণ বিনা খরচে করা হয়। এর মাধ্যমে জানা যায় শরীরে অন্য বড় কোনো রোগ আছে কি না। যেমন—হেপাটাইটিস-বি, হেপাটাইটিস-সি, ম্যালেরিয়া, সিফিলিস, এইচআইভি (এইডস) ইত্যাদি।

৬. রক্তদান অনেকক্ষেত্রে ক্যানসার প্রতিরোধেও সহায়তা করে।

৭. রক্তে কোলস্টেরলের উপস্থিতি কমাতে সাহায্য করে।

৮. শরীরে অতিরিক

ইসরাফিল হোসেন / ইসরাফিল হোসেন


মন্তব্য করুন

কেশবপুরে ছাত্রদল নেতাদের উদ্যোগে জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে কুরআন শরীফ বিতরণ

স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভালো না হলে মৃত্যুহার ভারত-পাকিস্তানের মতো হতো

যশোরে নেশার টাকা না পেয়ে ঘরে আগুন

যশোরে করোনার চিকিৎসা করছেন কবিরাজ

খালেদা জিয়া দু'দফা ক্ষমতায় থেকেও জিয়া হত্যার বিচার না করা রহস্যজনক

গণপরিবহনে স্বাস্থ‌্যবিধি না মানলে ব‌্যবস্থা : কাদের

ফরিদপুরে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী দোকান কর্মচারীকে পাশবিক নির্যাতন

দালালের খপ্পরে লিবিয়ায় গিয়ে ফরিদপুরের কামরুল লাশ

২০০ পরিবারের পাশে ফ্রান্স আওয়ামী যুবলীগ নেতা কামরুল হাসান সেলিম

দেশে নতুন শনাক্ত ১৭৬৪, সর্বোচ্চ মৃত্যু ২৮

যশোর বোর্ডের এসএসসির ফল জানবেন যেভাবে

শান্ত-মারিয়াম ও সুন্দরবন কুরিয়ারের প্রতিষ্ঠাতার করোনায় মৃত্যু

কালীগঞ্জে সুপারি গাছ থেকে পড়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে সিয়াম!

কারাগার থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এহসান হাবিব সুমন এর খোলা চিঠি

এসএসসি পরীক্ষাঃ বাংলা দ্বিতীয় পত্রে বেশি নম্বর সহজেই...

যেকোন সময় ঘোষণা হতে পারে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি

যশোরে এবার সরকারি চালসহ ঘাতক দালাল নিমূল কমিটির নেতা আটক

৫০ বছর ধরে দল করেও সুবিধা বঞ্চিত আ'লীগের প্রচার সম্পাদক নূরুল হক

যশোরের রাজগঞ্জে ৫৬ যুবকের উদ্যোগে ভাসমান সেতু র্নিমাণ

কেশবপুরের শাহীনের সেই ভ্যানটি উদ্ধার, আটক তিনজন

লালমনিরহাটে এক বিধবা মা বাইসাইকেল চালিয়ে ৪২ বছর স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছেন

নোংরা রাজনীতির শিকার যশোরের এমপি স্বপনের ছেলে শুভ

নারী সহকারীর সঙ্গে ডিসির অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল, সংবাদ না করার অনুরোধ

ব্যাচমেট হিসেবে সাইয়েমার পক্ষে সকলের কাছে ক্ষমা চাইলেন কেশবপুরের এসিল্যাণ্ড

আপনার কাছে জনপ্রিয় খেলা কোনটা ?

  ক্রিকেট

  ফুটবল

  ভলিবল

  কাবাডি

অফিস ঠিকানা  

আর এল পোল্ট্রি, উপজেলা রোড, কেশবপুর বাজার, যশোর।
মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

প্রকাশক ও সম্পাদক 

মোঃ মাহাবুবুর রহমান (মাহাবুর)

মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

সোশ্যাল মিডিয়ায় আমরা