আজ শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০, ২৭ আষাঢ় ১৪২৭           আমাদের কথা    যোগাযোগ
Owner

শিরোনাম

  জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল কপোতাক্ষ নিউজের জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীরা ০১৭১৯২৮০৮২৭ নাম্বারে যোগাযোগ করুন।  

আমনের বাম্পার ফলন: কৃষক যেন ন্যায্য দাম পায়


আমনের বাম্পার ফলন: কৃষক যেন ন্যায্য দাম পায়

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯   পঠিতঃ 79002


সুসংবাদ হল, দেশে আমনের বাম্পার ফলন হয়েছে। দুঃসংবাদ হল, গত বছরের মতো এবারও ধানের ন্যায্য দাম না পাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

বর্তমানে প্রতি মণ ধান উৎপাদনে কৃষকের খরচ হয় ৭৫০ থেকে ৮০০ টাকা। অথচ হাট-বাজারে এখন প্রতি মণ ধান বিক্রি হচ্ছে ৬০০ থেকে ৬৭৫ টাকায়।

তার মানে প্রতি মণ ধানে কৃষককে লোকসান গুনতে হচ্ছে ১৫০ থেকে ২০০ টাকা। এ হিসাবে প্রতি বিঘায় গড়ে ২৫ মণ ধান উৎপাদন হলে ধান চাষ করে লোকসান গুনতে হচ্ছে কমপক্ষে ৪ হাজার টাকা।

অভিযোগ রয়েছে, আমন কাটা ও মাড়াই শুরু হওয়ার পর মূলত চালকল মালিকরাই ধানের দাম নিয়ন্ত্রণ করেন। বাজারে ধান ওঠার পর সিন্ডিকেট করে তারা অন্তত দুই সপ্তাহ কোনো ধান কেনেন না। এর ফলে স্বাভাবিকভাবেই বাজারে ধানের দাম পড়ে যায়। আর তখন ধান কিনে গুদামজাত করা হয় এবং ওই ধান দিয়ে সারা বছর চাল তৈরি করে বেশি দামে বিক্রি করা হয়।

দেখা গেছে, প্রতি বছর সরকারিভাবে ধান কেনা হলেও প্রকৃত কৃষকরা ফড়িয়া ও দালালদের কারসাজিতে গুদামে ধান বিক্রি করতে পারেন না। ফলে কৃষক উৎপাদিত ফসলের ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হয়।

সরকার ইতিমধ্যে ঘোষণা করেছে, এবার সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ৬ লাখ মেট্রিক টন ধান কেনা হবে। সঠিক উপায়ে ও প্রকৃত কৃষকদের কাছ থেকে যাতে এসব ধান কেনা হয়, সেদিকে কঠোর নজরদারি প্রয়োজন। দুঃখজনক হল, কৃষক কষ্ট করে ফসল উৎপাদন করলেও অধিকাংশ ক্ষেত্রে তারা ন্যায্য দাম পাচ্ছে না, এ ক্ষেত্রে প্রতারিত হচ্ছে।

এটি শুধু আমন নয়, অন্যান্য ফসলের ক্ষেত্রেও ঘটছে। মূলত কৃষকের সামনে বিকল্প কোনো ব্যবস্থা না থাকায় তারা উৎপাদন খরচের চেয়ে অনেক কম মূল্যে ধানসহ অন্যান্য ফসল বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছে।

এ অবস্থায় কৃষককে সুরক্ষা দেয়ার জন্য সরকারি নীতিমালা থাকা জরুরি। প্রতিবেশী ভারতে সরকারিভাবে দেশটির মোট উৎপাদনের ২০ শতাংশ ধান ও চাল সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে সংগ্রহ করা হয়। আমাদের দেশে এ হার অনেক কম; মাত্র ৩ থেকে ৪ শতাংশ।

সরকার মূলত চালকল মালিকদের কাছ থেকে চাল কিনে থাকে। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে প্রায় প্রতি বছর বড় বড় চালকল মালিক ও ব্যবসায়ী গ্রুপগুলো চালের বাজার অস্থির করার অপপ্রয়াস চালায়।

চাল আমাদের প্রধান খাদ্যদ্রব্য। চালের দর নিয়ে যে কোনো ধরনের অস্থিরতা রোধ করে মানুষের দুর্ভোগ লাঘব করতে হলে সরকারের কার্যকর কৌশল ও ব্যবস্থা থাকা উচিত। সরকারিভাবে ২০-২৫ শতাংশ মুনাফা দিয়ে ধানের মূল্য নির্ধারণের পর কৃষকের কাছ থেকে অন্তত ১৫ শতাংশ ধান সংগ্রহ করা উচিত।

আশা করা যায়, এর ফলে কৃষক লাভবান হবে। তাদের মুখে হাসি ফুটবে। বস্তুত এজন্য দেশে কৃষিপণ্যের মূল্য নির্ধারণ নীতিমালার আওতায় একটি ‘প্রাইজ কমিশন’ গড়ে তোলা দরকার। বলার অপেক্ষা রাখে না, দীর্ঘ মেয়াদে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হলে কৃষকের ন্যায্যমূল্য পাওয়ার বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে।

তা না হলে কৃষক বারবার লোকসানের আশঙ্কায় ধান চাষে আগ্রহ হারিয়ে ফেললে তা ভোক্তার জন্য তো বটেই, দেশের জন্যও মঙ্গলজনক হবে না। যুগান্তর 

ইসরাফিল হোসেন / ইসরাফিল হোসেন


মন্তব্য করুন

কেশবপুর আসনের উপ-নির্বাচনে অনিয়ম তদন্তে ইসির কমিটি গঠন

ঠাকুরগাঁওয়ে আজ ৭ জন করোনায় আক্রান্ত

মনিরামপুরে নিজ উদ্যোগে রাস্তা সংস্কার করলেন কৃষকলীগ নেতা

হায়দ্রাবাদে একদিন-১

নির্বাচন পেছানোর আইনগত কোন সুযোগ কমিশনের কাছে নেই : সিইসি

জৈন্তাপুরে ভারী-বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

মনিরামপুরে চিকিৎসকসহ একদিনে ১৩ জনের করোনা শনাক্ত

উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকা প্রতীকে ভোট দিন: শাহীন চাকলাদার

মনিরামপুরে সাংবাদিকদের সাথে নবাগত ইউএনওর মতবিনিময় অনুষ্ঠিত

ঠাকুরগাঁওয়ে আজ ৫ জন করোনায় আক্রান্ত

যবিপ্রবির ল্যাবে যশোরের ৪৫ জনের করোনা শনাক্ত

কোভিড-১৯ সনদ নিয়ে জালিয়াতি: কয়েকটি দেশে বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

কালীগঞ্জে সুপারি গাছ থেকে পড়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে সিয়াম!

কারাগার থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এহসান হাবিব সুমন এর খোলা চিঠি

এসএসসি পরীক্ষাঃ বাংলা দ্বিতীয় পত্রে বেশি নম্বর সহজেই...

যেকোন সময় ঘোষণা হতে পারে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি

যশোরে এবার সরকারি চালসহ ঘাতক দালাল নিমূল কমিটির নেতা আটক

৫০ বছর ধরে দল করেও সুবিধা বঞ্চিত আ'লীগের প্রচার সম্পাদক নূরুল হক

যশোরের রাজগঞ্জে ৫৬ যুবকের উদ্যোগে ভাসমান সেতু র্নিমাণ

কেশবপুরের শাহীনের সেই ভ্যানটি উদ্ধার, আটক তিনজন

লালমনিরহাটে এক বিধবা মা বাইসাইকেল চালিয়ে ৪২ বছর স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছেন

নোংরা রাজনীতির শিকার যশোরের এমপি স্বপনের ছেলে শুভ

নারী সহকারীর সঙ্গে ডিসির অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল, সংবাদ না করার অনুরোধ

ব্যাচমেট হিসেবে সাইয়েমার পক্ষে সকলের কাছে ক্ষমা চাইলেন কেশবপুরের এসিল্যাণ্ড

আপনার কাছে জনপ্রিয় খেলা কোনটা ?

  ক্রিকেট

  ফুটবল

  ভলিবল

  কাবাডি

অফিস ঠিকানা  

আর এল পোল্ট্রি, উপজেলা রোড, কেশবপুর বাজার, যশোর।
মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

প্রকাশক ও সম্পাদক 

মোঃ মাহাবুবুর রহমান (মাহাবুর)

মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

সোশ্যাল মিডিয়ায় আমরা