আজ শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭           আমাদের কথা    যোগাযোগ

শিরোনাম

  প্রতিনিধি হইতে ইচ্ছুকরা ০১৭৪৭৬০৪৮১৫ নাম্বারে যোগাযোগ করুন।  

মিথ্যা মামলায় নিরপরাধ মানুষের করণীয় কি?


মিথ্যা মামলায় নিরপরাধ মানুষের করণীয় কি?

প্রকাশিতঃ সোমবার, ফেব্রুয়ারী ২৪, ২০২০   পঠিতঃ 103194


আজ থেকে এক যুগের বেশি হবে, আমি তখন ছাত্র রাজনীতির সাথে জড়িত। বিশেষ করে রাজনীতি করলে যেটা হয় ঝুড়ি ঝুড়ি মিথ্যা মামলা হামলা হয়রানি এটা নিত্য নৈমিত্তিক বিষয়। যেটা আমাদের সমাজে প্রতিনিয়ত মিথ্যা ও তুচ্ছ মামলা দায়েরের মাধ্যমে নিরপরাধ মানুষকে হয়রানি করার ঘটনা ঘটে চলে দিনের পর দিন। সুতারাং এই বিষয়গুলি আমি খুব কাছ থেকে দেখেছি এবং বুঝেছি এই মিথ্যা মামলা হামলা হয়রানির যন্ত্রণা কত ভয়াবহ ও কষ্টদায়ক।  নিজেদের স্বার্থ উদ্ধারে প্রতিপক্ষকে প্রায়ই সামাজিক এবং আর্থিকভাবে হয়রানি করার জন্য করাহয় মিথ্যা মামলা। পারিবারিক বিভিন্ন বিষয়কে কেন্দ্র করেও এ ধরনের অভিযোগ দায়ের করা হয়। যেমন যৌতুক, ভরণপোষণ, খোরপোশ, তালাক প্রভৃতি বিষয়ে মিথ্যা মামলা দায়ের করে স্বামী-স্ত্রীর স্বাভাবিক সংসারজীবন বিপন্ন করে তোলা হয়। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে প্রেমের বিয়েকে কেন্দ্র করে নারী অপহরণ, ধর্ষণসহ বিভিন্ন মামলা দায়ের করা হয়। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ক্ষেত্রে অধিকাংশ মামলাই মিথ্যা ও হয়রানিমূলক উদ্দেশ্যে দায়ের করার ঘটনা ঘটে। কিন্তু মিথ্যা মামলার শিকার হলে আইন অনুযায়ী মামলা দায়েরকারীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া যায়।

যদি মিথ্যা মামলার শিকার হয়েই যান কেউ, সে ক্ষেত্রে আমার অভিজ্ঞতা থেকে পরামর্শ থাকবে আইন ও আদালতের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে মামলাটি লড়ে যেতে হবে। যদি দলিলপত্র ও সাক্ষ্যপ্রমাণ ঠিক থাকে, তাহলে মিথ্যা মামলা থেকে রেহাই মিলবে। মামলা থেকে পালিয়ে থাকা বুদ্ধিমানের কাজ নয়। এতে আপনার অনুপস্থিতিতেই সাজা হয়ে যেতে পারে। তবে ফৌজদারি মামলায় জামিনের বিষয় জড়িত থাকে। জামিন বিষয়ে কিছুটা ভোগান্তি পোহাতে হতে পারে। মিথ্যা মামলা হলে রেহাই মিলে। থানায় মামলা হলে তদন্তকারী কর্মকর্তার কাছে যথাযথ সত্যতাসহ যাবতীয় দলিল উপস্থাপন করতে হবে। পুলিশ ইচ্ছে করলে গ্রেপ্তার না করে মামলার বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে আপনাকে নির্দোষ দেখিয়ে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দায়ের করতে পারে।সে ক্ষেত্রে আপনি সহজে মুক্তি পেতে পারেন।

আর যদি পুলিশ গ্রেপ্তার করে আদালতে চালান দেয় সেক্ষেত্রে জামিনের আবেদন করতে হবে। পরবর্তী সময়ে অভিযোগ গঠনের দিন মামলা থেকে অব্যাহতির আবেদন করতে হবে। নিম্ন আদালতে অব্যাহতি না পেলে পর্যায়ক্রমে উচ্চ আদালতের আশ্রয় নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। যদি আদালতে সরাসরি মামলা হয়, তাহলেও আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইতে হবে এবং পরবর্তী সময়ে মামলার কার্যক্রম চালিয়ে যেতে হবে। মামলা সাক্ষ্য পর্যায়ে গেলে উপযুক্ত সাক্ষ্যপ্রমাণ উপস্থাপন করতে হবে। যদিও মামলার অভিযোগের সত্যতার প্রমাণ যিনি মামলা করেন তাঁর ওপর বর্তায়। অনেক সময় মিথ্যা মামলা হলে মামলাকারী মামলা ঠুকে দেওয়ার পর আর হাজির হন না। এ ক্ষেত্রে কয়েকটি তারিখ যাওয়ার পর মামলা থেকে খালাস পাওয়ার জন্য আবেদন করার সুযোগ আইনে রয়েছে। মামলা মিথ্যা প্রমাণিত হলে অবশ্যই মিথ্যা মামলা দায়েরকারীর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা আপনি গ্রহণ করতে পারেন।

এখন আসুন দেখি মিথ্যা মামলায় শাস্তির বিধান সম্পর্কে যশোর জেলা  সহকারী আইন কর্মকর্তা,(এপিপি) অ্যাড.বশির আহমেদ খান কি বলেন:

বিশেষ এক সাক্ষাতে অ্যাড.বশির আহমেদ খান বলেন ফৌজদারি কার্যবিধির ২৫০ ধারায় মিথ্যা অভিযোগের শাস্তির বিধান রয়েছে। ম্যাজিস্ট্রেট যদি আসামিকে খালাস দেওয়ার সময় প্রমাণ পান যে মামলাটি মিথ্যা ও হয়রানিমূলক, তাহলে ম্যাজিস্ট্রেট বাদীকে কারণ দর্শানোর নোটিশসহ ক্ষতিপূরণের আদেশ দিতে পারেন। দণ্ডবিধির ১৯১ ও ১৯৩ ধারায় মিথ্যা সাক্ষ্যদানের শাস্তির জন্য সর্বোচ্চ সাত বছর কারাদণ্ডসহ অর্থদণ্ডের কথা উল্লেখ আছে। দণ্ডবিধির ২০৯ ধারামতে, মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করলে সর্বোচ্চ দুই বছর কারাদণ্ডসহ অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হতে হবে। আবার ২১১ ধারায় মিথ্যা ফৌজদারি মামলা দায়ের করার শাস্তির ক্ষেত্রে বলা হয়েছে, কোনো ব্যক্তি ক্ষতি সাধনের উদ্দেশ্যে কোনো অভিযোগ দায়ের করলে অথবা কোনো অপরাধ সংঘটিত করেছে মর্মে মিথ্যা মামলা দায়ের করলে মামলা দায়েরকারীকে দুই বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ড কিংবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করারও বিধান রয়েছে। 

তবে অভিযোগের বিষয় যদি এমন হয় যে যার কারণে মৃত্যুদণ্ড, যাবজ্জীবন বা সাত বছরের ওপর সাজা হওয়ার আশঙ্কা ছিল, তাহলে দায়ী অভিযোগকারীর সর্বোচ্চ সাত বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডসহ অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবে। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০-এর ১৭ ধারায়ও মিথ্যা মামলা দায়েরের শাস্তির কথা উল্লেখ আছে। এখানে বলা হয়েছে, যদি কোনো ব্যক্তি কারও ক্ষতি সাধনের উদ্দেশ্যে এই আইনের অন্য কোনো ধারায় মামলা করার জন্য আইনানুগ কারণ নেই জেনেও মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেন অথবা করান, তবে সেই অভিযোগকারী অনধিক সাত বছর সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং অতিরিক্ত অর্থদণ্ডেও দণ্ডিত হবেন।

লেখক,
মোঃ শাহ্ জালাল.
একজন গণমাধ্যম কর্মী ও সাবেক ছাত্রনেতা।
                                      -০-

শাহ্‌ জালাল / কামরুজ্জামান রাজু


মন্তব্য করুন

যশোরে তিন কিশোর নিহত: দুর্নীতি ও মাদক ব্যবসাকেই দায়ী করছেন নাগরিক সমাজ

বঙ্গবন্ধু বাঙ্গালী জাতির হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ সন্তান: ইঞ্জিনিয়ার আলমগীর

কোটচাঁদপুরে জাতীয় শোক দিবস পালন

কেশবপুরে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জাতীয় শোক দিবস পালন

নাটোরে জাতীয় শোক দিবস পালন

শোক দিবস উপলক্ষে ন্যাশনাল প্রেস সোসাইটির উদ্যোগে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

মুরাদনগরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্যের মধ্য দিয়ে জাতীয় শোক দিবস পালন

অনেক কিছু খোলা হয়েছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও খোলা হবে

কেশবপুরে বঙ্গবন্ধুর ৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত

করোনা এমনিতেই বাংলাদেশ থেকে চলে যাবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মত প্রকাশের স্বাধীনতা একেবারে জাদুঘরে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে: রিজভী

তেহরানে জাতীয় শোক দিবস পালিত, ফার্সি ভাষায় প্রকাশিত হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর 'অসমাপ্ত আত্মজীবনী'

কালীগঞ্জে সুপারি গাছ থেকে পড়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে সিয়াম!

কারাগার থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এহসান হাবিব সুমন এর খোলা চিঠি

এসএসসি পরীক্ষাঃ বাংলা দ্বিতীয় পত্রে বেশি নম্বর সহজেই...

যেকোন সময় ঘোষণা হতে পারে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি

যশোরে এবার সরকারি চালসহ ঘাতক দালাল নিমূল কমিটির নেতা আটক

৫০ বছর ধরে দল করেও সুবিধা বঞ্চিত আ'লীগের প্রচার সম্পাদক নূরুল হক

যশোরের রাজগঞ্জে ৫৬ যুবকের উদ্যোগে ভাসমান সেতু র্নিমাণ

কেশবপুরের শাহীনের সেই ভ্যানটি উদ্ধার, আটক তিনজন

লালমনিরহাটে এক বিধবা মা বাইসাইকেল চালিয়ে ৪২ বছর স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছেন

নোংরা রাজনীতির শিকার যশোরের এমপি স্বপনের ছেলে শুভ

নারী সহকারীর সঙ্গে ডিসির অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল, সংবাদ না করার অনুরোধ

ব্যাচমেট হিসেবে সাইয়েমার পক্ষে সকলের কাছে ক্ষমা চাইলেন কেশবপুরের এসিল্যাণ্ড

আপনার কাছে জনপ্রিয় খেলা কোনটা ?

  ক্রিকেট

  ফুটবল

  ভলিবল

  কাবাডি

অফিস ঠিকানা  

আর এল পোল্ট্রি, উপজেলা রোড, কেশবপুর বাজার, যশোর।
মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

প্রকাশক ও সম্পাদক 

মোঃ মাহাবুবুর রহমান (মাহাবুর)

মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

সোশ্যাল মিডিয়ায় আমরা