আজ বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯           আমাদের কথা    যোগাযোগ

শিরোনাম

  প্রতিনিধি হইতে ইচ্ছুকরা ০১৭৪৭৬০৪৮১৫ নাম্বারে যোগাযোগ করুন।  

পাঠ্যপুস্তকে এক নেতা ছাড়া অন্য কারও নাম নেই : মির্জা ফখরুল


পাঠ্যপুস্তকে এক নেতা ছাড়া অন্য কারও নাম নেই : মির্জা ফখরুল

প্রকাশিতঃ বুধবার, এপ্রিল ২৭, ২০২২   পঠিতঃ 32130


বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এখন পাঠ্যপুস্তকে একজন নেতা ছাড়া অন্য কারও নাম নেই, ইতিহাস নেই। ফলে আমাদের ছোট ছোট নাতি-নাতনি যারা স্কুলে পড়াশোনা করে, তারা শুধু একজনের নাম জানে। অন্য কারো নাম জানে না। এমনকি এখন যারা কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছে তারাও শেরে বাংলা একে ফজলুল হকের নাম ভুলে যাওয়ার অবস্থায় পৌঁছেছেন।

বুধবার (২৭ এপ্রিল) জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে শেরে বাংলা ফজলুল হকের ৬০তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে একটা মাত্র পরিবার, একটি মাত্র দর্শনকে সামনে নিয়ে আসার জন্য আজকে সমগ্র বাংলাদেশের ইতিহাসকে বিকৃত করা হচ্ছে। প্রেক্ষাপট ছিল এক নেতা এক দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ। মুজিববাদকে প্রতিষ্ঠা করতে হবে এবং এ ছাড়া আর অন্য কিছু থাকবে না। বাংলাদেশের যা কিছু আছে সব কিছুই ওই কেন্দ্রিক হতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, এভাবে রাজনীতিকে ধ্বংস করা হচ্ছে, বিরোধী দলের রাজনীতিকে ধ্বংস করা হচ্ছে, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে রাখা হয়েছে। এই যে মিথ্যাচার, এর জন্যই আমরা প্রতিনিয়ত বলি যে প্রকৃতপক্ষে আওয়ামী লীগ জনগণের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে। আর এ জন্যই শেরে বাংলা ফজলুল হকের মতাদর্শন আমাদের জন্য প্রাসঙ্গিক।

তিনি বলেন, ভয়াবহ আগ্রাসন এই জাতির উপর শুরু হয়েছে। ইতিহাস, সংস্কৃতি, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক দিক থেকে। আগ্রাসন রুখতে হবে কারণ এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই সরকারের আগ্রাসনটা সর্বগ্রাসী। একদিকে ইতিহাস বিকৃত করছে, অর্থনীতিকে পুরোপুরিভাবে ধ্বংস করে দিয়েছে, অন্য দিকে রাজনীতিকে এক দলীয়করণের দিকে নিয়ে গিয়ে গণতন্ত্রকে সরিয়ে দিয়ে ফ্যাসিবাদী দিকে অগ্রসর হচ্ছে। এই বিষয়গুলো সরকার অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে করছে। শুধুমাত্র ক্ষমতায় টিকে থাকার বিষয় নয় বরং এটাকে দার্শনিকভাবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাচ্ছে সরকার। আর এ সমস্ত কাজগুলো করার জন্য দেশের সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে দিয়েছে।

নিউমার্কেটের ব্যবসায়ী ও ছাত্রদের সংঘর্ষ ইস্যুতে মির্জা ফখরুল বলেন, সংঘর্ষে দুজন প্রাণ দিলেন অথচ পুলিশ প্রথমেই বিএনপি নেতাদের গ্রেপ্তার ও তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে, রিমান্ডে নিয়েছে। অথচ সমস্ত গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উঠে এসেছে এ ঘটনার জন্য মূলত দায়ী ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে একটা মাত্র পরিবার, একটি মাত্র দর্শনকে সামনে নিয়ে আসার জন্য আজকে সমগ্র বাংলাদেশের ইতিহাসকে বিকৃত করা হচ্ছে। প্রেক্ষাপট ছিল এক নেতা এক দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ। মুজিববাদকে প্রতিষ্ঠা করতে হবে এবং এ ছাড়া আর অন্য কিছু থাকবে না। বাংলাদেশের যা কিছু আছে সব কিছুই ওই কেন্দ্রিক হতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, এভাবে রাজনীতিকে ধ্বংস করা হচ্ছে, বিরোধী দলের রাজনীতিকে ধ্বংস করা হচ্ছে, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে রাখা হয়েছে। এই যে মিথ্যাচার, এর জন্যই আমরা প্রতিনিয়ত বলি যে প্রকৃতপক্ষে আওয়ামী লীগ জনগণের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে। আর এ জন্যই শেরে বাংলা ফজলুল হকের মতাদর্শন আমাদের জন্য প্রাসঙ্গিক।

তিনি বলেন, ভয়াবহ আগ্রাসন এই জাতির উপর শুরু হয়েছে। ইতিহাস, সংস্কৃতি, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক দিক থেকে। আগ্রাসন রুখতে হবে কারণ এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই সরকারের আগ্রাসনটা সর্বগ্রাসী। একদিকে ইতিহাস বিকৃত করছে, অর্থনীতিকে পুরোপুরিভাবে ধ্বংস করে দিয়েছে, অন্য দিকে রাজনীতিকে এক দলীয়করণের দিকে নিয়ে গিয়ে গণতন্ত্রকে সরিয়ে দিয়ে ফ্যাসিবাদী দিকে অগ্রসর হচ্ছে। এই বিষয়গুলো সরকার অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে করছে। শুধুমাত্র ক্ষমতায় টিকে থাকার বিষয় নয় বরং এটাকে দার্শনিকভাবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাচ্ছে সরকার। আর এ সমস্ত কাজগুলো করার জন্য দেশের সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে দিয়েছে।

নিউমার্কেটের ব্যবসায়ী ও ছাত্রদের সংঘর্ষ ইস্যুতে মির্জা ফখরুল বলেন, সংঘর্ষে দুজন প্রাণ দিলেন অথচ পুলিশ প্রথমেই বিএনপি নেতাদের গ্রেপ্তার ও তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে, রিমান্ডে নিয়েছে। অথচ সমস্ত গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উঠে এসেছে এ ঘটনার জন্য মূলত দায়ী ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা।

কলাবাগান তেঁতুলতলা খেলার মাঠ নিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বাচ্চাদের ফুটবল খেলার মাঠ দখল করে থানা বানানো হচ্ছে। এরকম অসংখ্য ঘটনা আছে, আজকে সারা বাংলাদেশের মানুষের কোথাও কোনো নিরাপত্তা নেই। বরং কি করে তাদেরকে আরও বেশি হয়রানি করা যায় সে ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, রাজনীতিবিদরা যখন ইতিহাস রচনা করেন, সেটা ইতিহাস হয় না সেটা হয় প্রোপাগান্ডা। ইতিহাস রচনা করতে হবে ইতিহাসবিদদের। কারণ তারা ইতিহাস রচনা করেন কিছু মৌলিক বিষয়ের উপর। আজকে একটাই ইতিহাস হচ্ছে, একটা দলের একটা গোষ্ঠীর, একটা পরিবারের ইতিহাস রচিত হচ্ছে। যে ইতিহাসে বাংলাদেশের স্বাধীনতা থেকে এখন পর্যন্ত যে সত্যিকারের মাইল ফলক তারা হারিয়ে ফেলেছে। তাই আজকে এ.কে.এম ফজলুল হকের মত এমন মহানায়কে স্মরণ করা হয় না।

শেরে বাংলা জাতীয় যুব ফাউন্ডেশন আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্স, ঢাকা মহানগর বিএনপি নেতা ইশরাক হোসেন, সাবেক ছাত্রনেতা জহির উদ্দিন স্বপন প্রমুখ।

ইসরাফিল হোসেন / ইসরাফিল হোসেন


মন্তব্য করুন

কালীগঞ্জে সুপারি গাছ থেকে পড়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে সিয়াম!

কারাগার থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এহসান হাবিব সুমন এর খোলা চিঠি

এসএসসি পরীক্ষাঃ বাংলা দ্বিতীয় পত্রে বেশি নম্বর সহজেই...

যেকোন সময় ঘোষণা হতে পারে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি

যশোরে এবার সরকারি চালসহ ঘাতক দালাল নিমূল কমিটির নেতা আটক

লালমনিরহাটে এক বিধবা মা বাইসাইকেল চালিয়ে ৪২ বছর স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছেন

৫০ বছর ধরে দল করেও সুবিধা বঞ্চিত আ'লীগের প্রচার সম্পাদক নূরুল হক

নোংরা রাজনীতির শিকার যশোরের এমপি স্বপনের ছেলে শুভ

যশোরের রাজগঞ্জে ৫৬ যুবকের উদ্যোগে ভাসমান সেতু র্নিমাণ

কেশবপুরের শাহীনের সেই ভ্যানটি উদ্ধার, আটক তিনজন

ব্যাচমেট হিসেবে সাইয়েমার পক্ষে ক্ষমা চাইলেন কেশবপুরের এসিল্যান্ড

নারী সহকারীর সঙ্গে ডিসির অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল, সংবাদ না করার অনুরোধ

আমাদের নিউজ পোর্টাল আপনার কেমন লাগে ?

  খুব ভালো

  ভালো

  খুব ভালো না

  ভালো লাগে না

অফিস ঠিকানা  

আর এল পোল্ট্রি, উপজেলা রোড, কেশবপুর বাজার, যশোর।
মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

প্রকাশক ও সম্পাদক 

মোঃ মাহাবুবুর রহমান (মাহাবুর)

মোবাইলঃ   ০১৭১৯২৮০৮২৭
ইমেইলঃ   info@kopotakkhonews24.com

সোশ্যাল মিডিয়ায় আমরা